প্রশ্নঃ মেয়েদের জন্য পুরুষদের পোশাক যেমন, জিন্সের প্যান্ট, টি শার্ট পরা কি সব অবস্থাতেই হারাম? যদি তারা এগুলো বোরকার নিচে পরে বা বাসায় পরে থাকে যেখানে কোনো গায়রে মাহরাম দেখার কোনো সুযোগ নেই তাহলে কি জায়েয হবে?

উত্তরঃ হাদিসে পুরুষদের জন্য নারীদের এবং নারীদের জন্য পুরুষদের বেশ-ভূষা অবলম্বন করার ব্যাপারে কঠোর নিষেধাজ্ঞা এসেছে। এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করা কবিরা গুনাহ।

সুতরাং যে কোন অবস্থায় নর-নারীর জন্য বিপরীত লিঙ্গের পোশাকআশাক, জুতা ইত্যাদি পরিধান করা হারাম। এমনকি স্বামী-স্ত্রী একে অপরের সামনেও তা করতে পারবে না।

যখন টি-শার্ট ও জিন্সের প্যান্ট পরা যাবেঃ

অত:পর কথা হল, কোন মহিলা যদি মহিলাদের উদ্দেশ্যে বিশেষভাবে তৈরি কৃত জিন্সের প্যান্ট বা টিশার্ট পরিধান করে আর তা বোরকা বা জিলবাব দ্বারা পরিপূর্ণভাবে ঢাকা থাকে তাহলে তাতে কোন সমস্যা নেই। কেননা এতে পুরুষদের সাথে সাদৃশ্য থাকছে না। তাছাড়া সে তা বোরকার নিচে পরিধান করেছে। বরং এতে দ্বিগুণ পর্দা হল। উপরে বোরকা তার নিচে অন্য পোশাক।

অনুরূপভাবে একজন মহিলা তার স্বামীর সামনে মহিলাদের জন্য বিশেষভাবে তৈরিকৃত টি-শার্ট ও জিন্সের প্যান্ট ইত্যাদি পরিধান করতে পারে। শরীয়তে এতে কোনো বাধা নেই।

সতর্কতাঃ

তবে সর্বাবস্থায় বিপরীত লিঙ্গের পোশাক পরিধান করা থেকে বিরত থাকা অপরিহার্য-স্বামীর সামনে হলেও। কেননা এ ব্যাপারে হাদিসে কঠোর নিষেধাজ্ঞা এসেছে।

আর মহিলারা মহিলাদের মহলে অথবা মাহরাম পুরুষদের সামনেও ঢিলেঢালা ও শালীন পোশাক পরিধান করবে। এমন পাতলা বা টাইট পোশাক পরিধান করবে না যাতে তার শরীরের বিশেষ অঙ্গগুলো দৃশ্যমান হয় বা বা ফুটে উঠে।

আরও পড়ুনঃ লিপস্টিক ব্যবহার করা যাবে কি?

আল্লাহু আলাম।

উত্তর প্রদানেঃ
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
(লিসান্স, মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, সউদী আরব)
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।

2 thoughts on “মহিলাদের টি-শার্ট ও জিন্সের প্যান্ট পরিধানের বিধান

Comments are closed.