মেশিনের সাহায্যে জবাই করা পশুর গোস্ত খাওয়া কি হালাল হবে? ইসলাম এ বিষয়ে কি বলে?

প্রশ্ন: পাশ্চাত্যের দেশগুলোতে হালাল মুরগি দু’ধরণের পাওয়া যায়। ছুরির মাধ্যমে হাতে জবেহ করা আর মেশিনের সাহায্যে জবেহ করা। হাতে জবেহ করা মুরগি নির্দিষ্ট কিছু জায়গায় পাওয়া যায়।

এখানে এ বিষয়ে খুব মতবিরোধ হয়। কেউ কেউ বলে, মেশিনে জবেহ কৃত প্রাণীর গোস্ত হালাল নয়।

আমার প্রশ্ন হল, আল্লাহর নাম নিয়ে মেশিনে জবেহ করা হলে তা কি হালাল হবে? এতো সংখ্যক মুসলিমের জন্যে হাতে জবেহ করা এখানে প্রায় অসম্ভব বলা চলে। উত্তরটি জানালে উপকৃত হবো।

উত্তরঃ মুরগি, ছাগল, গরু, উট ইত্যাদি হালাল জন্তুকে ছুরি দিয়ে জবেহ করার সময় গলার যে স্থানগুলো কাটা হয় (খাদ্যনালী, শ্বাসনালী ইত্যাদি) মেশিনের তীক্ষ্ণ যন্ত্রের সাহায্য যদি সে স্থানগুলো কাটা হয় (এমন কি পুরো মাথাটা বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হলেও তাতে কোন সমস্যা নেই)।

মেশিন চালানোর সময় যদি বিসমিল্লাহ পাঠ করা হয় তাহলে মেশিনের মাধ্যমে জবেহ কৃত প্রাণীর গোস্ত খাওয়া হালাল। অবশ্য জবেহ করার সময় যদি হঠাৎ বিসমিল্লাহ বলতে ভুলে যায় তাহলে তাতে কোন সমস্যা নেই ইনশাআল্লাহ।

কার জবাই করা পশু খাওয়া হারাম?

উল্লেখ্য যে, কোন মুসলিম অথবা (অধিক বিশুদ্ধ মতানুসারে) আহলে কিতাব তথা ইহুদী-খৃষ্টান যদি আল্লাহর নামে হালাল প্রাণী জবেহ করে তাহলে তার জবেহকৃত প্রাণীর গোস্ত খাওয়া বৈধ।

তবে যদি কোন অগ্নীপুজক, মূর্তিপূজারী, মুশরিক, নাস্তিক ইত্যাদি কেউ জবেহ করে তাহলে তার জবেহকৃত প্রাণীর গোস্ত খাাওয়া বৈধ নয়।

মেশিনের সাহায্যে কিভাবে জবাই করলে হারাম হবে?

যদি বৈদ্যুতিক শক অথবা ভারি কোন বস্তু দ্বারা পশুর মাথা বা শরীরে আঘাতের মাধ্যমে অথবা গুলি করে অথবা ইনজেকশনের সাহায্যে মেরে ফেলা হয় অথবা জীবন্ত মুরগিগুলোকে সরাসরি মেশিনের ভেতর ঢুকিয়ে হত্যা করা হয় তাহলে সেগুলো খাওয়া হালাল হবে না।

ইসলাম নির্দেশিত পন্থায় পশুর গলা কেটে জবেহ করার মাধ্যমে জবেহ কৃত প্রাণীর শরীরের সব রক্ত বের হয়ে যায়। এতে তার গোস্ত হয় জীবাণু মুক্ত এবং স্বাস্থ্যসম্মত। আল হামদুলিল্লাহ।

ইসলাম মানবজাতিকে এমন পদ্ধতিতে পশু জবেহ করার পদ্ধতি শিক্ষা দিয়েছে যেটি সবচেয়ে উত্তম ও স্বাস্থ্য সম্মত পদ্ধতি।

পশুর কষ্টের বিষয়ে ইসলামী বিধানঃ

জবেহ করতে গিয়ে যেন পশুর বেশি কষ্ট না হয় ইসলাম তারও নির্দেশনা দিয়েছে। যেমন হাদিসে এসেছে-
শাদ্দাদ ইবনে আওস রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেনঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন:

«إِنَّ اللَّهَ كَتَبَ الْإِحْسَانَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ، فَإِذَا قَتَلْتُمْ فَأَحْسِنُوا الْقِتْلَةَ، وَإِذَا ذَبَحْتُمْ فَأَحْسِنُوا الذِّبْحَةَ، وَلْيُحِدَّ أَحَدُكُمْ شَفْرَتَهُ، وَلْيُرِحْ ذَبِيحَتَهُ» رَوَاهُ مُسْلِمٌ

আল্লাহ তা‘আলা প্রতিটি জীবের উপর ইহসান (দয়া) করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন (কোন ন্যায্য কারণে) যদি হত্যা কর তবে ভালভাবে হত্যা করবে, (যথা সম্ভব কষ্টের লাঘব করবে) জবেহ করলে ভালভাবে জবেহ করবে-ছুরি ভাল করে ধার দেবে, জবেহ কৃত জন্তুর কষ্টের লাঘব করবে।”

সহীহ মুসলিম ১৯৫৫

আল্লাহু আলাম।

উত্তর প্রদানেঃ
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
(লিসান্স, মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, সউদী আরব)
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।